মঠবাড়িয়ায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে স্কুল শিক্ষক ও যুবলীগ নেতাসহ ৬ জন আহত - অনলাইন মঠবা‌ড়িয়া সেবা

শিরোনাম

"সত্য প্রকা‌শে আমরা"

Post Top Ad

Wikipedia

সার্চ ফলাফল

১০ এপ্রিল, ২০২০

মঠবাড়িয়ায় জমি নিয়ে সংঘর্ষে স্কুল শিক্ষক ও যুবলীগ নেতাসহ ৬ জন আহত

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধিঃ পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় বসত বাড়ির জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে বিবদমান দুই পক্ষের সংঘর্ষে আপন তিন ভাইসহ উভয় পক্ষের ছয়জন আহত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার দক্ষিণ বড়মাছুয়া গ্রামের স্থানীয় নুরুল ইসলামপুর বাজারে এ হামলার ঘটনা ঘটে। স্বজনরা ওই রাতেই আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।
আহত ও প্রতক্ষদর্শী সূত্রে জানাগেছে, উপজেলার বড়মাছুয়া ইউনিয়নের দক্ষিন বড়মাছুয়া গ্রামের মৃত. সফিল উদ্দিন হাওলাদারের পুত্র ব্যবসায়ী নুরুল ইসলামের সাথে ছোট ভাই নাসির উদ্দিনের ৪৫ শতাংশ বসত বাড়ির জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদে উভয় পক্ষের মধ্যে শালিগ বৈঠকও বিদ্যমান। বৃহস্পতিার সন্ধ্যায় ওই বিরোধীয় জমিতে ছোট ভাই নাসিরের পক্ষ অবলম্বন করে অপর সেজ ভাই নুরুল হক মাষ্টার ওই বিরোধীয় জমিতে বেড়া ও পুকুরে ঘাট দিতে গেলে বড় ভাই নুরুল ইসলাম ও তার ছেলেরা বাঁধা দেয়। এসময় দুই পক্ষে বাক বিতন্ডার এক পর্যায় উভয় পক্ষ দাড়ালো অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।
এতে বড় ভাই নুরুল ইসলাম (৬০), তার সেজ ভাই ও মাঝেরচর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নুরুল হক (৫২) ছোট ভাই নাসির উদ্দিন (৪০), ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন (৩২), নুরুল ইসলামের পুত্র ও স্থানীয় একটি স্কুলের নৈশ প্রহরী সগির হোসেন (৩২) ও কলেজ ছাত্র শহিদুল ইসলাম (২৮) গুরুতর জখম হন।
বড়মাছুয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জমির মালিকানা নিয়ে নুরুল ইসলাম ও ছোট ভাই নাসির উদ্দিনের বিরোধ নিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের বৈঠকে মিমাংশা চূড়ান্ত পর্যায় থাকলেও নুরুল হক মাষ্টার চলমান শালিস অগ্রাহ্য করে জমিতে বেড়া দিতে গেলে এ সংঘর্ষ বাঁধে।
মঠবাড়িয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মাসুদ্দুজামান মিলু বলেন, বিবদমান দুই পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দাযের করেছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন