বাংলাদেশের ৫০ তম স্বাধীনতা দিবসে সবাই কে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন এম,ডি রাজিবুল ইসলাম - অনলাইন মঠবা‌ড়িয়া সেবা

শিরোনাম

"সত্য প্রকা‌শে আমরা"

Post Top Ad

Wikipedia

সার্চ ফলাফল

২৬ মার্চ, ২০২০

বাংলাদেশের ৫০ তম স্বাধীনতা দিবসে সবাই কে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন এম,ডি রাজিবুল ইসলাম


পরিমল বিশ্বাস, যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ- যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলার স্বেচ্ছাসেবক লীগের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিঃ যুগ্ম  আহব্বায়ক এম,ডি রাজিবুল ইসলাম

২৬ মার্চ বাংলাদেশের মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। ভয়াল ‘কালরাত্রি’র পর রক্তে রাঙা নতুন সূর্য উঠেছিল ১৯৭১ সালের এই দিন, পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙে ১৯৭১ সালের এই দিনে বিশ্বের বুকে বাংলাদেশের স্বাধীন অস্তিত্ব ঘোষিত হয়েছিল,এ ঘোষণার মাধ্যমে স্বাধীনতার জন্য সশস্ত্র যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল জাতি। দীর্ঘ নয় মাস রক্তপাত আর অজস্র প্রাণের বিনিময়ে অর্জিত হয় মহান স্বাধীনতা । এবার স্বাধীনতার ৫০বছর পূর্ণ্য   হলো একাত্তরের অর্জন বলতে একটি ভাষা, সার্বভৌম ভূমি, মুক্ত বাতাসে নিঃশ্বাস আর বাক স্বাধীনতা। অবশ্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বলতে যে অর্থনৈতিক মুক্তি, বৈষম্যহীন, ক্ষুধা দারিদ্র্যমুক্ত সমাজ, একটি ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্রব্যবস্থার কথা বলা হয় গত ৫০ বছরে তার কতোটা অর্জিত হয়েছে তা নিয়ে বিতর্ক এখনো রয়েই গেছে। বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণে দ্ব্যর্থহীনভাবে বলেছিলেন, `এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম।` অশেষ আত্মত্যাগের বিনিময়ে রাজনৈতিক স্বাধীনতা আমরা অর্জন করেছি  মহান স্বাধীনতা।

অসংখ্য শহীদের রক্তে ভেজা, জাতির বীরসেনানীদের রক্তস্নাত মুক্তিযুদ্ধের সূচনা দিন। বাঙালীর স্বাধীনতার ঘোষণা ও মুক্তিযুদ্ধের শুরুর দিন। গৌরব ও স্বজন হারানোর বেদনার এই দিনে বীর বাঙালী সশস্ত্র স্বাধীনতা যুদ্ধের সূচনা করেছিল। তাই আজ গৌরব ও অহঙ্কারের দিন।

 ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলন থেকে স্বাধিকার আন্দোলন ও ১৯৭১ সালের স্বাধীনতার দীর্ঘ সংগ্রামে বারবার দেশের মাটি রক্তে ভিজিয়ে পবিত্র করেছেন বাংলা মায়ের দামাল ছেলেরা। ঐতিহাসিক ভাষণে বাঙালির অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঘোষণা করেন, ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।’ জাতিকে এ মুক্তির সংগ্রামে অংশ নিতে নির্দেশ দিয়ে তিনি যার যা কিছু আছে তা-ই নিয়ে শত্রুর বিরুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান। ১৯৭১ সালে ২৫ মার্চ কালরাত থেকে পাকিস্তানি হানাদারদের পাশাপাশি তাদের এ দেশীয় দোসর শান্তি কমিটি, রাজাকার, আলবদর ও আলশামস বাহিনীর নিষ্ঠুর হামলার শিকার হয় বাঙালি জাতি। অবশেষে ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশ-ভারত যৌথ বাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করে হানাদার পাকিস্তান বাহিনী। পৃথিবীর মানচিত্রে নতুন একটি দেশের অভ্যূদয় ঘটে ,যার নাম বাংলাদেশ।

জনাব রাজিবুল ইসলাম বলেন করোনা ভাইরাস বিশ্বে মাহামরি দেখা দিয়েছে তাই সকলকে সর্তক থাকতে হবে  বাস্তবতা তুলে ধরে হিংসা বিদ্বেষ  ভুলে সবাই কে নিয়ে পরিস্থিতি মোকাবেলাই কাজ করতে হবে, সাবান পানি ও স্যানিটাইজার দিয়ে হাত ধোয়া,হাত না ধূয়ে মূখ চোখ ও নাক স্পর্শ না করা, হাচি  কাশি দেওয়ার সময় মূখ ঢেকে রাখা,ঠান্ডা বা ক্রু আক্রন্ত ব্যাক্তির কাছা কাছি না যওয়া মাংস ডিম খুব ভালভাবে সিদ্ধ করে রান্না করা, হাচি কাশি দেওয়ার পর, টয়লেট করার পর, ভালভাবে হাত ধোয়ার পরামর্শ দেই  লক্ষণ  দেখা দিলে  বিশ্রাম  নিয়ে প্রচুর ফলের রস ও পানি পান করতে হবে এবং নিকটস্থ  হাসপাতালের চিকিৎসকের পরামর্শ  নেওয়ার আহবান  জানায়

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন